শুক্রবার, ২৬ জুলাই ২০২৪, ১২:৫৭ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
সেন্টমার্টিনে মিয়ানমারের দুই সেনা ও ৩১ রোহিঙ্গার অনুপ্রবেশ ২ রোহিঙ্গা যুবকের দেহ তল্লাশিতে মিললো অস্ত্র গুলি টানা বর্ষণে কক্সবাজার শহরে জলাবদ্ধতা, পর্যটকদের দুর্ভোগ কক্সবাজার জেলা পরিষদের ১৪৬ কোটি ৮৩ লাখ টাকা বাজেট ঘোষণা কক্সবাজার আইকনিক রেলস্টেশনে নেটওয়ার্ক কোয়ালিটি টেস্ট কার্যক্রম পরিদর্শন করেছেন পলক আরসার জোন ও কিলিংগ্রুপ কমান্ডারসহ আটক ৩ পটিয়ায় যৌতুক নিয়ে তরুণীর আত্মহত্যা, হবু স্বামী গ্রেফতার  মহেশখালী হত্যা মামলার আসামী মাদ্রাসার সভাপতি হতে দৌঁড়ঝাপ চকরিয়ার চিংড়িজোনে বিপুল অস্ত্র ও কার্তুজসহ বাহিনী প্রধান বেলালসহ গ্রেফতার চার কক্সবাজারে রোহিঙ্গাদের জন্য ফ্রান্সের ১.৫ মিলিয়ন ইউরো অনুদানে ইউএনএইচসিআরের কৃতজ্ঞতা

কক্সবাজার সৈকতে রং-তুলিতে লিওনেল মেসি

কাতারে বিশ্বকাপ ফুটবলের উত্তেজনার মধ্যে কক্সবাজারে প্রদর্শন করা হচ্ছে হাতে আঁকা লিওনেল মেসির সবচেয়ে বড় ছবি। বিশ্বের সবচেয়ে আলোচিত এই ফুটবলারের সবচেয়ে বড় ছবি প্রদর্শিত হচ্ছে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের বালিয়াড়িতে। সৃষ্টিশীল প্লেমেকারের ছবি দেখতে ভিড় করেছেন পর্যটক ও তার ভক্তরা।

শনিবার (৩ ডিসেম্বর) বিকেলে সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্টে ছবিটির প্রদর্শনীর আয়োজন করে চিত্রশিল্পী তারিকুল ইসলাম ও হাসিঘর ফাউন্ডেশন কক্সবাজার।
আয়োজকরা বলেন, কাতার বিশ্বকাপকে সামনে রেখে সবচেয়ে প্রিয় খেলোয়াড় লিওনেল মেসির সবচেয়ে বড় ছবি সাদা কাপড়ে অ্যাক্রলিক রং দিয়ে আঁকা হয়েছে। যার দৈর্ঘ্য ৩৪ ফুট এবং প্রস্থ ২২ ফুট। তাদের দাবি, কাপড়ে আঁকা এই ছবিটি হবে বিশ্বের মধ্যে হাতে আঁকা মেসির সবচেয়ে বড় ছবি। এই ছবিটিতে আকাশের সাত রং ব্যবহার করা হয়েছে।

চিত্রশিল্পী তারিকুল ইসলাম বলেন, কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে মেসির সবচেয়ে বড় ছবিটি ছাড়াও ক্ষুদ্র ছবি মিষ্টি কুমড়া বীজে আঁকা আটটি ছবি রয়েছে। একক শিল্পকর্মের মাধ্যমে সারা বিশ্বের কাছে পৌঁছে দিতে চাই। এরআগে শেখ হাসিনা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড–২০২২’ অর্জন এবং ‘এশিয়া বুক অফ রেকর্ড’- স্থান পেয়েছে আমার শিল্পকর্ম। এছাড়া আমি দুটি একক চিত্রপ্রদর্শনী করেছি।

চিত্র শিল্পী তরিকুল জানান, তিনি একজন মেসি ভক্ত। আর্জেন্টিনা তার প্রিয় দল। মেসির এটা শেষ বিশ্বকাপ। তার আশা এবারের বিশ্বকাপ ফুটবলের শিরোপাটা মেসির হাতে উঠবে।

কক্সবাজারে বেড়াতে আসা পর্যটকের অনেকেই সমুদ্র দর্শনের সঙ্গে অতিরিক্ত পাওয়া মেসির ছবি দেখে উচ্ছ্বসিত।
ছবিটির কারিগর বগুড়ার ধুনট উপজেলার বেড়েরবাড়ী মো. আব্দুল কাফি প্রামাণিকের ছেলে মো. তারিকুল ইসলাম। ছবি আঁকার হাতে খড়ি বড় ভাই তাজমিনুর রহমান তাজের মাধ্যমে। বর্তমানে রামু ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজে চারু ও কারুকলা বিষয়ে সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্মরত আছেন তিনি।

 

ডিসি৭১/২২/ইয়াছমিন