বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ০৮:১২ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
সেন্টমার্টিনে মিয়ানমারের দুই সেনা ও ৩১ রোহিঙ্গার অনুপ্রবেশ ২ রোহিঙ্গা যুবকের দেহ তল্লাশিতে মিললো অস্ত্র গুলি টানা বর্ষণে কক্সবাজার শহরে জলাবদ্ধতা, পর্যটকদের দুর্ভোগ কক্সবাজার জেলা পরিষদের ১৪৬ কোটি ৮৩ লাখ টাকা বাজেট ঘোষণা কক্সবাজার আইকনিক রেলস্টেশনে নেটওয়ার্ক কোয়ালিটি টেস্ট কার্যক্রম পরিদর্শন করেছেন পলক আরসার জোন ও কিলিংগ্রুপ কমান্ডারসহ আটক ৩ পটিয়ায় যৌতুক নিয়ে তরুণীর আত্মহত্যা, হবু স্বামী গ্রেফতার  মহেশখালী হত্যা মামলার আসামী মাদ্রাসার সভাপতি হতে দৌঁড়ঝাপ চকরিয়ার চিংড়িজোনে বিপুল অস্ত্র ও কার্তুজসহ বাহিনী প্রধান বেলালসহ গ্রেফতার চার কক্সবাজারে রোহিঙ্গাদের জন্য ফ্রান্সের ১.৫ মিলিয়ন ইউরো অনুদানে ইউএনএইচসিআরের কৃতজ্ঞতা

চেয়ারম্যান আবদুল হক কোম্পানির হস্তক্ষেপে পাইনবাগান জামে মসজিদের দীর্ঘদিনের দ্বন্দ্বের সমাধান

বিগত চার মাস পর্যন্ত খুনিয়া পালং  ১ নং ওয়ার্ড  এবং দুই নং ওয়ার্ড  এর মাঝামাঝি  পাইন বাগান জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির দ্বন্দ্ব অবশেষে খুনিয়া পালং ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুল হক কোম্পানির হস্তক্ষেপে সমাধান হয়েছে।
 10 ফেব্রুয়ারি ২০২৩) পাইন বাগান  জামে মসজিদ মাদ্রাসা ও এতিমখানার বার্ষিক সভা  অনুষ্ঠানে জুমার নামাজের পর এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তি ও এলাকাবাসী মুসল্লীদের কে নিয়ে সামাজিক বৈঠকের মাধ্যমে চেয়ারম্যান  সরোজমিনে  নিজে এসে  তাদের  দীর্ঘদিনের মনোমালিন্যের সমাধান করে দিয়েছেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মৌলানা মহিবুল্লাহ  1 নং ওয়ার্ডের মেম্বার  ডাক্তার নসরুল্লাহ রায়হান । দুই নং ওয়ার্ডের মেম্বার  জানে  আলম –
মসজিদটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হামিদুল হক চৌধুরী সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তি সমাজের মুসল্লিগণ । আব্দুল হক কোম্পানি বলেছেন দীর্ঘদিনের মসজিদ পরিচালনা কমিটি নিয়ে দীর্ঘদিনের অবসান আজকে সমাধান করা হয়েছে
এবং মসজিদ মাদ্রাসা হচ্ছে আল্লাহর ঘর সবাই মসজিদে এসে নামাজ আদায় করবে
এবং সৎ ও  যোগ্য   ব্যক্তির মাধ্যমে  মসজিদ ও মাদ্রাসার পরিচালনা করতে হবে
 যারা মসজিদে মাদ্রাসা পরিচালনা করবে তাদেরও অবশ্যই নিয়মিত মসজিদে  এসে নামাজ আদায় করতে  এবং সেই নিজে নিয়মিত মুসল্লি হতে হবে
সুতরাং মসজিদ মাদ্রাসা নিয়ে  পরিচালনা কমিটি নিয়ে দ্বন্দ্ব থাকাটা সেটা ভালো কাজ নয়।
সমাজের মুসল্লিরা বলছেন  ফাইন বাগান জামে মসজিদটি প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর থেকে  রহমতুল্লাহ নামক ব্যক্তিটি মসজিদ ও মাদ্রাসার জন্য নিরলস পরিশ্রম করে আসছেন ।
নিজে এবং সমাজের অন্যান্য ব্যক্তিদের নিয়ে মসজিদ ও মাদ্রাসাটি ভালোভাবে চালানোর জন্য বিভিন্ন  জায়গায় গিয়ে মসজিদের জন্য আর্থিক  টাকা পয়সা মানুষের কাছ থেকে নিয়ে আসেন।
প্রায় সাত বছর যাবত  রহমাতুল্লাহ মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতির  দায়িত্ব পালন করে আসছে।
 অত্যন্ত সৎ ও যোগ্য ব্যক্তি হিসেবে তার দায়িত্ব পালন অত্যন্ত সুন্দরও সুষ্ঠু ।
সে নিয়মিত প্রত্যেক মাসে মসজিদের খতিব নিয়মিত নামাজের ইমাম মাদ্রাসা শিক্ষকদের বেতন প্রদান করে আসছেন
মসজিদের ফানডে টাকা পয়সা না থাকলেও তার নিজের তহবিল থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা আল্লাহর ঘর মসজিদ ও মাদ্রাসার জন্য খরচ করেছেন।
রহমতুল্লাহ মসজিদ পরিচালনার দায়িত্বে থাকলে পাইনবাগান জামে মসজিদ ও মাদ্রাসাটি অত্যন্ত সুষ্ঠু ও ভালোভাবে চলবে বলে এলাকাবাসীরা জানিয়েছেন।