1. coxsbazarekattorbd@gmail.com : Cox's Bazar Ekattor : Cox's Bazar Ekattor
  2. crander@stand.com : :
  3. coxsekttornews@gmail.com : Balal Uddin : Balal Uddin
সদর উপজেলা নির্বাচনে হাড্ডা হাড্ডি লড়াই হবে হেভিওয়েট দুই প্রার্থীর : বিজয়ের পথে নুরুল আবছার - Cox's Bazar Ekattor | দৈনিক কক্সবাজার একাত্তর
মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ০৮:৩৯ পূর্বাহ্ন

সদর উপজেলা নির্বাচনে হাড্ডা হাড্ডি লড়াই হবে হেভিওয়েট দুই প্রার্থীর : বিজয়ের পথে নুরুল আবছার

  • আপলোড সময় : বুধবার, ৮ মে, ২০২৪
  • ৬৬ জন দেখেছেন

সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন মাঠে থাকবে ম্যাজিষ্ট্রেট র‌্যাব, পুলিশ, বিজিবিসহ সাদা পোশাকে গোয়েন্দা
মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে এগিয়ে রয়েছে ফুটবল প্রতীকের প্রার্থী অধ্যাপিকা রোমানা আক্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক:
ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রথম ধাপে আজ ৮ মে বুধবার কক্সবাজার সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন উপহার দিতে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে মাঠে থাকবে ম্যাজিষ্ট্রেট র‌্যাব,পুলিশ বিজিবিসহ সাদা পোশাকে গোয়েন্দা সদস্যরা।
কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাচনে হাড্ডা হাড্ডি লড়াই হবে হেভিওয়েট দুই প্রার্থীর মধ্যে বিজয়ের পথে নুরুল আবছার এমনটিই দাবি করেছেন সদর উপজেলার ভোটাররা।
মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে এগিয়ে রয়েছে ফুটবল প্রতীকের প্রার্থী অধ্যাপিকা রোমানা আক্তার, কারণ তিনি একজন উচ্চ শিক্ষিত এবং মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান। অনেকই বলছেন অতি অল্প সময়ের তিনি সাধারণ ভোটারের কাছে চলে যেতে পেরেছে।
কক্সবাজার সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে ৮২ টি ভোট কেন্দ্রে মোট ২ লক্ষ ২২ হাজার ৯৯৬ জন ভোটার রয়েছে। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লক্ষ ১৯ হাজার ২৯৪ জন। মহিলা ভোটার ১ লক্ষ ৩ হাজার ৭০২ জন। ৮২ টি ভোট কেন্দ্রে মোট ভোটকক্ষ (বুথ) রয়েছে ৫৯৮ টি। তারমধ্যে স্থায়ী বুথ ৫৫৪ টি এবং অস্থায়ী বুথ ৪৪টি।
কক্সবাজার জেলার অতিগুরুত্বপূর্ণ সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দুই প্রার্থী ভোটারের কাছে যেতে বিজয় হতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। কেউ কাউকে ছাড় দিতে নারাজ। দুই প্রার্থীই শক্তিশালী হওয়ায় বিভিন্ন ভোট কেন্দ্রে ঝুঁকি রয়েছে বলে মনে করছেন ভোটাররা।
নির্বাচন ঘিরে পোস্টার, বিলবোর্ডে ছেয়ে গেছে কক্সবাজার পৌরসভাসহ সদর উপজেলার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থান। এ ছাড়া হাট-বাজার, চায়ের দোকান ও বিভিন্ন মহলের আড্ডায় জমে উঠেছে নির্বাচনী আলোচনা। যেহেতু রাত পোহালে নির্বাচন।
সবার প্রশ্ন একটাই কে হচ্ছেন সদর উপজেলা পরিষদের নতুন চেয়ারম্যান। সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্পন্ন হলে বিজয়ের মালা পড়তে পারে নুরুল আবছার।
এদিকে কক্সবাজার সদর উপজেলা রিটানিং কর্মকর্তার কাছে ১১টি ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রের লিখিত তালিকা দিয়েছে মোটরসাইকেল মার্কা প্রতীকের প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আবছার। তিনি আশংঙ্কা প্রকাশ করে বলেন এইসব ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্র গুলোতে বহিরাগতদের প্রভাব বিস্তার হতে পারে। তবে দুই প্রার্থীর মধ্যে ভোটের লড়াই হবে হাড্ডা হাড্ডি এমনটি মনে করছেন অনেক সচেতন ভোটাররা।
নির্বাচন ঘিরে কক্সবাজার পৌরসভা ও সদর উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতা-কর্মীদের সঙ্গে চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীরা রাতেও গণসংযোগ করে এলাকার উন্নয়নে নানান প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন।
তবে বিএনপি,জাতীয় পার্টি,জামায়াত সহ অন্য দলের নেতারা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে না থাকায় এই ভোট ব্যাংকটি নুরুল আবছারের মোটর সাইকেলে পড়বে এমনটি জানিয়েছেন ঝিলংজার ভোটার আব্দু রহমান।
জানা গেছে, কক্সবাজার সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দুইজন হেভিওয়েট প্রার্থী লড়ছেন। লড়াই হবে হাড্ডা হাড্ডি। কিছু কিছু কেন্দ্রে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটারও আশাংক্ঙকা প্রকাশ করছেন সচেতন মহল।
একজন হলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কক্সবাজার পৌরসভার সাবেক মেয়র মুজিবুর রহমান আর অপরজন হলেন কক্সবাজার পৌরসভার চারবারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান ও বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আবছার। এ নির্বাচন ঘিরে শুরুতে পাঁচজন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিলেও শেষে তিনজন নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান। আজ ৮ মে, ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।
দলের নেতা-কর্মী ও ভোটারেরা জানান, শুরুর দিকে মুজিবুর রহমানের অবস্থান ভালোই ছিল।কিন্তু বর্তমান চেয়ারম্যান কায়সারুল হক জুয়েল নির্বাচন থেকে সরে দাড়ানো, স্থানীয় সাংসদ,পৌর মেয়র, প্রভাবশালী এ কে এম মোজাম্মেল হক পরিবার এবং আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতাকর্মীদের সাথে দুরত্বের কারণে মারাত্বক বেকায়দায় রয়েছেন তিনি।
এছাড়া সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দিতা করা এটি তার জন্য প্রথম অভিজ্ঞতা। সবদিক বিববেচনায় মুজিবুর রহমান ভোটের মাঠে কিছুটা পিছিয়ে রয়েছেন।
তবে ?বিপরীত চিত্র পৌরসভার চারবারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান নুরুল আবছারের। তার পক্ষে জোর প্রচারণা চলছেই। তাঁর হয়ে মাঠে নেমেছেন কক্সবাজার পৌরসভার বর্তমান মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান চৌধুরী, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহমুদুল করিমসহ জেলা-উপজেলা আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকর্মী ও সুশীলসমাজ।
এছাড়া নুরুল আবছারের রয়েছে ২০০০ সালের সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাচনের অভিজ্ঞতা। পাশাপাশি কক্সবাজার পৌর এলাকায় তার রয়েছে ১০ হাজারের অধিক নিরব ভোট ব্যাংক। সবদিক বিবেচনায় এ নির্বাচনে ভোটের মাঠে অনেকটাই এগিয়ে রেখেছে তাকে।
কক্সবাজার সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে জনগণের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী, কক্সবাজার পৌরসভার চারবার নির্বাচিত সফল চেয়ারম্যান, জনবান্ধব নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আবছারের (মোটর সাইকেল প্রতীক) মাঠের জরিপে ভোট যুদ্ধ এগিয়ে রয়েছে খবর পাওয়া গেছে, অপর দিকে অধ্যাপিকা রুমানা আক্তার ভাইস চেয়ারম্যান পদে অনেক বেশি রয়েছে বলে জানান ভোটারারা।
ভোট হলো পবিত্র আমানত। ভোটের সময় নানা কৌশলে এই আমানত নিয়ে নির্বাচিত হওয়ার পর দুনীর্তিসহ নানা অপকর্মে জড়িয়েছে অনেক জনপ্রতিনিধি। ভোটারদের বিশ্বাসের সাথে করা হয়েছে ছিনিমিনি। তাই এবার কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাচনে সাবেক চার বারের পৌর চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আবছারকে নিরাপদ ভাবছেন সাধারণ ভোটারেরা।
ভোটারদের অভিমত, নির্বাচনের ভোটের জন্য সবাই আকুতি-মিনতি করে। কিন্তু নির্বাচিত হওয়ার পর সবাই ভুলে যায়। উল্টো সাধারণ মানুষ তাদের কাছে অনেকটা অনিরাপদ হয়ে উঠে। তবে নুরুল আবছার একজন পরীক্ষিত যোদ্ধা। তিনি শুধু কক্সবাজার নয়, পুরো বাংলাদেশের জন্য নিরাপদ।
ইতোমধ্যে মোটরসাইকেল প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী নুরুল আবছার শক্ত অবস্থানে মাঠে রয়েছে । এসময় মানুষের ভালবাসায় তিনি আপ্লূত হন। অনেকেই দোকান ও বাড়ি থেকে সাদাসিধে নুরুল আবছারকে এক পলক দেখতে ছুঁটে আসেন। বুকে জড়িয়ে আপন করে নেয় এই প্রিয় নেতাকে। অনেক মানুষ নুরুল আবছারের ত্যাগ ও উপকারের কথা আবেগপ্রবণ হয়ে তুলে ধরেন।
তিনি বলেন, ‘নির্বাচন হলো মানুষের স্বপ্নের নবায়ন। এতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা থাকতে পারে। তাই বলে অতি উৎসাহী হয়ে পরস্পর কাঁদা ছুড়াছুঁড়ি কোনভাবেই কাম্য নয়। নির্বাচিত হলে সদর উপজেলায় বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনা হবে। খেদমত করা হবে দ্বীন ও মানুষের।
কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) রকিবুজ্জামান, নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচন উপহার দিতে পুলিশ প্রশাসনের তরফ থেকে চেষ্টার কোন কমতি থাকবেনা।

শেয়ার করতে পারেন খবরটি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো বিভিন্ন খবর দেখুন

Sidebar Ads

ডাঃ কবীর উদ্দিন আহমদ

© All rights reserved © 2015 Dainik Cox's Bazar Ekattor
Theme Customized By MonsuR