1. coxsbazarekattorbd@gmail.com : Cox's Bazar Ekattor : Cox's Bazar Ekattor
  2. coxsekttornews@gmail.com : Balal Uddin : Balal Uddin
টেকনাফ পৌর শহরের উঠনি সড়কটি এখন মরণ ফাঁদে পরিণতঃ ভোগান্তিতে যাত্রী সকল - Cox's Bazar Ekattor | দৈনিক কক্সবাজার একাত্তর
বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০:৩২ অপরাহ্ন
Advertisement

টেকনাফ পৌর শহরের উঠনি সড়কটি এখন মরণ ফাঁদে পরিণতঃ ভোগান্তিতে যাত্রী সকল

  • আপলোড সময় : রবিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২১
  • ২৫০ জন দেখেছেন
Advertisement

মোঃ আশেক উল্লাহ ফারুকী টেকনাফ:

টেকনাফ পৌর শহর উঠনি নামক সড়কটি যানজটের নাকালে পরিণত হয়েছে । পর্যটন মৌসুমে পর্যটক. সীমান্ত বাণিজ্যের পরিবহন গাড়ি ও দূরপাল্লার গাড়ি যাতায়াত রীতিমতো ঝুঁকি মাথায় নিয়ে চলাচল করছে। উঠনী নামক সড়কটি উন্নয়ন প্রয়োজন। ঝুঁকিপূর্ণ উঠনি সড়কটি টেকনাফ পৌর শহর প্রবেশদ্বার এবং এ সড়কটি পর্যটন মৌসুমে অনেক সময় জনজাটের রূপ ধারণ করে এবং ফলে যাত্রীবাহী বাস. পরিবহন ও দূরপাল্লার গাড়ি যানজটের মধ্যে যাত্রী সকল পর্যটকেরা ভোগান্তিতে পড়ে। টেকনাফ একটি পর্যটন শহর এবং বাংলাদেশের সর্ব দক্ষিণ সীমান্ত জনপদ হিসাবে সড়কটি প্রশস্ত এবং নিরাপদ যাতায়াতে ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন। প্রতি বৎসর পর্যটন মৌসুমে সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে। মেরিন ড্রাইভ সড়ক দ্রুত টেকনাফ কক্সবাজারে অন্য কোন বিকল্প সড়ক না থাকায় টেক নামক উঠনি সড়কটি এখন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে।১৬ নভেম্বর দৈনিক আজকের বসুন্ধরা পত্রিকা সম্পাদক সোহেল রানাসহ কক্সবাজার থেকে চারজন পর্যটকবাহী প্রাইভেট গাড়ি যুগে কক্সবাজার থেকে সেন্টমার্টিন যাবার উদ্দেশ্যে টেকনাফ পৌর শহর উঠনি সড়কে পৌঁছলে সকাল নয় টায় জনজাটের কবলে পড়ে। যার কারণে ওরা ঐদিন সেন্টমার্টিন জাহাজে উঠতে পারেনি। অপর এক সূত্রে জানা যায় প্রায় শতাধিক পর্যটক ঐদিন সেন্টমার্টিনে যেতে তাদের ভাগ্যে জোটেনি। এ নিয়ে পর্যটকরা পরস্পর বলাবলি কি শোনা যায়. টেকনাফ একটি পর্যটন শহর হলে ও উন্নয়নে তেমন কোনো অগ্রগতি নেই। বিষয়টি সংশ্লিষ্টদের আমলে আনা প্রয়োজন। কক্সবাজার সড়ক ও জনপথ বিভাগ হোয়াইকং উনচিপ্রাং পর্যন্ত দ্বিতীয় প্যাকেজ সড়ক উন্নয়নের কাজ সম্পন্ন হলেও তৃতীয় প্যাকেজ টেকনাফ পৌর শহর পর্যন্ত সড়কের উন্নয়নে কোন আলামত দেখা যাচ্ছে না। উঠনী নামক থেকে পৌর শহরের কুলাল পাড়া পর্যন্ত মিউনিসিপাল প্রকল্পের আওতায় বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে ১৮ টি উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে। সড়ক ও জনপথ বিভাগের মালিকানাধীন সড়কের দু’পাশে ড্রেন নির্মাণ হচ্ছে। এ কারণে প্রধান সড়কে যাতায়াত ও দুলা বালি স্বাস্থ্যের জন্য হুমকিস্বরূপ। দূরদূরান্ত থেকে আসা ডেলিভারি রোগী এ সড়ক দিয়ে যাতায়াত রীতিমতো অসহনীয় হয়ে ওঠে। এমন ও অভিযোগ রয়েছে যে অন্তঃসত্ত্বা নারী হাসপাতালে আসার পথে গাড়ির ঝাঁকুনিতে মাঝপথে ডেলিভারি হয়ে যায়। টেকনাফ পৌরসভা প্রধান সডক ভগ্ন সড়ক সংস্কার করা হলে এই দুর্গতি থেকে বাছবে পৌরবাসী সহ দূরপাল্লার পর্যটকরা। এ প্রসঙ্গে সরকারি মোবাইল ফোনে (০১৭৩০৭৮২৬৮৬) কক্সবাজার সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী খন্দকার গোলাম মোস্তফা কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন. সড়ক নির্মাণে শীঘ্রই টেন্ডার আহবান করা হচ্ছে এবং শীঘ্রই কাজ শুরু হবে বলে তিনি দৃঢ় প্রত্যয়ে প্রকাশ করেন।

Advertisement

71/mun

Advertisement

শেয়ার করতে পারেন খবরটি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো বিভিন্ন খবর দেখুন
Advertisement
Advertisement

Sidebar Ads

ডাঃ কবীর উদ্দিন আহমদ

Advertisement
© All rights reserved © 2015 Dainik Cox's Bazar Ekattor
Theme Customized By MonsuR