1. coxsbazarekattorbd@gmail.com : Cox's Bazar Ekattor : Cox's Bazar Ekattor
  2. coxsekttornews@gmail.com : Balal Uddin : Balal Uddin
কক্সবাজারে সিজার করাতে গিয়ে নবজাতকের গাল কাটল চিকিৎসক - Cox's Bazar Ekattor | দৈনিক কক্সবাজার একাত্তর
বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:২৬ অপরাহ্ন
Advertisement

কক্সবাজারে সিজার করাতে গিয়ে নবজাতকের গাল কাটল চিকিৎসক

  • আপলোড সময় : মঙ্গলবার, ২২ মার্চ, ২০২২
  • ১৭৯ জন দেখেছেন
Advertisement

৭১ অনলাইন ডেস্ক:

কক্সবাজারে সদর হাসপাতালে সিজার করাতে গিয়ে নবজাতকের গাল কেটে ফেলেছে চিকিৎসকরা। ওই নবজাতকের একটি ছবির ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। এই নিয়ে নিন্দার ঝড় উঠেছে। এতে করে হাসপাতালের অব্যবস্থাপনা ও চিকিৎসকদের দায়িত্বে অবহেলার নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা চলছে।

Advertisement

জানা গেছে, চকরিয়া উপজেলার কাকরার রেজাউল করিমের সন্তানসম্ভবা স্ত্রী সারজিনা আকতারকে শনিবার (১৯ মার্চ) রাতে সদর হাসপাতালে প্রসূতি ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। পরদিন রোববার রাতে তার সিজার করা হয়। সিজারের সময় ছুরির আঘাতে নবজাতকের গালের একাংশ কেটে যায়।

রোগী সারজিনা আকতার অভিযোগ করেছেন, সিজার করাতে গিয়ে তিনি চরম অবহেলার শিকার হয়েছেন। এমনকি তার সাথে দুর্ব্যবহারও করেছেন ওই চিকিৎসক।

Advertisement

ওই সময় পাশে থাকে এক রোগীর স্বজন জানিয়েছেন, সিজার করার জীবন-মৃত্যু সন্ধিক্ষণ হলেও চিকিৎসক-নার্সদের কাছে তার কোনো গুরুত্ব নেই। তারা অত্যন্ত অবহেলা করে সিজারটি করেছিলেন। আবার গাল কেটে যাওয়ার বিষয়ে ক্ষমাও চেয়েছেন।

তবে কোন চিকিৎসক সিজার করেছেন সে ব্যাপারে জানতে প্রসূতি ওয়ার্ডে অনেক খোঁজাখুঁজি করেও ওই রোগীর ফাইল দেখাতে পারেনি দায়িত্বরত নার্স।

Advertisement

এদিকে নবজাতকের গাল কেটে ফেলাকে প্রথমে সামান্য বিষয় বলেছেন হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক মুমিনুর রহমান। তবে পরে এ ঘটনায় ওই চিকিৎসককে শোকজ করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, দীর্ঘদিনের অভিযোগ রয়েছে—কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রশাসনিক দপ্তরের অব্যবস্থাপনা ও চিকিৎসক-নার্সরা দায়িত্বে অবহেলা করেন। এমনকি রোগীদের জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণেও তারা দায়িত্বে অবহেলা করেন। এই নিয়ে প্রায় রোগী ও স্বজনদের সাথে চিকিৎসক-নার্সদের বাদানুবাদের ঘটনা ঘটে। নবজাতের গাল কেটে ফেলার ঘটনাটিও অবহেলার কারণে ঘটেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। হাসপাতালের উপরের চিত্র উন্নতি হলেও চিকিৎসক-নার্সদের আচরণের পরিবর্তন হয়নি বলে মনে করেন সাধারণ মানুষ।

Advertisement

শেয়ার করতে পারেন খবরটি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো বিভিন্ন খবর দেখুন
Advertisement
Advertisement

Sidebar Ads

ডাঃ কবীর উদ্দিন আহমদ

Advertisement
© All rights reserved © 2015 Dainik Cox's Bazar Ekattor
Theme Customized By MonsuR