সংবাদ শিরোনাম :
তারানা-সাজু খাদেমসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা ঈদগাঁহ থানাকে দালালমুক্ত ও জনবান্ধব করার দাবি উঠছে কক্সবাজারে নানা আয়োজনে বিশ্ব পর্যটন দিবস পালিত অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম আর নেই কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের মাঝখানে জিওব্যাগ, সৌন্দর্য্য হারাচ্ছে সৈকতের কক্সবাজারে মূল্যতালিকা না টাঙ্গানো, মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্য মজুদের দায়ে জরিমানা ভূঁইফোড় আর নামধারী কথিত সাংবাদিকদের অপকর্মের শেষ কোথায়? দৈনিক কক্সবাজার ৭১ পত্রিকার প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক বিশিষ্ঠ ঠিকাদার মোহাম্মদ বেলাল উদ্দীন বেলাল করোনামুক্ত সাংবাদিক নাম ভাঙিয়ে অপকর্ম : বিব্রত পেশাদার সাংবাদিকরা এসপি মাসুদ হোসাইনকে জেলা কমিউনিটি পুলিশিং এর বিদায়ী সংবর্ধনা
হামলার সাথে জড়িত ইয়াবা গডফাদার ফরিদুল হক “নান্নু” গ্রেপ্তার

হামলার সাথে জড়িত ইয়াবা গডফাদার ফরিদুল হক “নান্নু” গ্রেপ্তার

দৈনিক কক্সবাজার ৭১ কার্যালয়ে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুরের ঘটনায় সর্বত্র প্রতিবাদ ও নিন্দার ঝড়

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

কক্সবাজার জেলার পাঠক নন্দিত, বহুল প্রচারিত দৈনিক কক্সবাজার ৭১ কার্যালয়ে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুরের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে শহরের টেকপাড়া এলাকার মৃত নুরুল হক কোম্পানীর পুত্র বর্তমানে বাহারছড়া এলাকায় অবস্থানরত ইয়াবার গডফাদার ফরিদুল হক (নান্নু)কে গ্রেপ্তার করেছে কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশ।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার অফিসার ইন্চার্জ সৈয়দ আবু মোহাম্মদ শাহজাহান কবির, অফিসার ইন্চার্জ (তদন্ত) মোঃ খাইরুজ্জামান, সাব ইন্সপেক্টর আরিফ, বেলালসহ সঙ্গিয় ফোর্স নিয়ে গতকাল ৫ আগষ্ট সকাল সাড়ে ১০টার দিকে শহরের বাহারছড়াস্থ জাফর হাজীর বিল্ডিং এর পাশে ঘুরাফেরার সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ফরিদুল হক (নান্নু) কে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে দৈনিক কক্সবাজার ৭১ কার্যালয়ে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুরের ঘটনায় পত্রিকার প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক মোঃ বেলাল উদ্দিন বেলাল বাদী হয়ে আরো অজ্ঞাত নামা ৩/৪ জনের বিরুদ্ধে সদর থানায় একটি এজাহার দায়ের করেছে। পুলিশ এজাহার আমলে নিয়ে দ্রুত সময়ের মধ্যে ঘটনার মূল পরিকল্পনাকারীকে আটক করায় পুলিশের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন একাত্তর পত্রিকা পরিবার। জানা যায়, কক্সবাজার সদরের চৌফলদন্ডীর ইয়াবা সম্রাট কিউবা রাখাইন ও শহরের টেকপাড়ার ইয়াবা মিজানের বিরুদ্ধে অনুসন্ধানী ধারাবাহিক সংবাদ প্রকাশ করায় বহুল প্রচারিত ও পাঠক নন্দিত দৈনিক কক্সবাজার একাত্তর অফিসে হামলা চালিয়ে ভংচুর করেছে ইয়াবা সংশ্লিষ্টরা। গত ১৯ জুলাই কক্সবাজার সদর থানার পুলিশ শহরের টেকপাড়া মাঝির ঘাট এলাকা থেকে ইয়াবাসহ আটক করে মিজানের সিন্ডিকেটের প্রায় কোটি টাকার ইয়াবা আটক করলেও ইয়াবা মিজানের সিন্ডিকেটের সবাই ছিল ধরাছোঁয়ার বাইরে ।

অপরদিকে চৌফলদন্ডী ইয়াবা সম্রাট কিউবা রাখাইনের বিরুদ্ধে ধারাবাহিক সংবাদ প্রচার করে আসছিল দৈনিক কক্সবাজার ৭১। গত সপ্তাহে মিজান পুলিশের হাতে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়। তাদের বিরুদ্ধে দৈনিক কক্সবাজার একাত্তর পত্রিকায় ধারাবাহিক অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশ করায় পত্রিকার সংবাদ বন্ধ করার জন্য টেকপাড়া এলাকার মৃত নুরুল হক কোম্পানী পুত্র বর্তমানে বাহারছড়া এলাকায় অবস্থানরত ফরিদুল হক (নান্নু) তদবীর চালায়। কিন্তু পত্রিকা কর্তৃপক্ষ সংবাদ বন্ধ না করায় উক্ত নান্নু ৪ আগস্ট বিকাল ৩টা ৫৮মিনিটে ৪/৫ জন স্বশস্ত্র সন্ত্রাসী নিয়ে পত্রিকা অফিসে অতর্কিত হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে। এতে পত্রিকা অফিসের কম্পিউটার ভাংচুর সহ আসবাবপত্রের ব্যাপক ক্ষতিসাধন হয়। তাছাড়া বেশ কিছু তথ্যপত্র ও জরুরী কাগজপত্র ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এতে করে জেলার পেশাদার সাংবাদিকদের মাঝে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। পত্রিকার প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক মোঃ বেলাল উদ্দিন বেলাল বলেন জানায়,অফিসে কেউ না থাকা অবস্থায় নান্নু ও তার ইয়াবা সিন্ডিকেটের বাহিনী অতর্কিত হামলা করে অফিসে সংরক্ষিত থাকা মুল্যবান কাগজপত্র নিয়ে পালিয়ে যায়। এ বিষয়ে থানায় মামলার দায়ের করা হয়েছে। এ বিষয়ে কক্সবাজার সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শাহাজাহান কবির তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করেন। তিনি বলেন-অপরাধী যে হোক না তাকে আইনের আওতায় আনা হবে। দৈনিক কক্সবাজার একাত্তর পত্রিকায় অফিসে ভাঙচুরের ঘটনায় কক্সবাজার সাংবাদিক মহলের মধ্যে চরম উদ্বেগ ও উৎকন্ঠা বিরাজ ।

মাদক নির্মূলে সরকার জিরোট্রলারেন্স ঘোষনা পর থেকে বহুল প্রচারিত জননন্দিত দৈনিক কক্সবাজার একাত্তর পত্রিকার তথ্য অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশ করে মাদক নির্মূলে প্রশাসনকে সহযোগিতা করে যাচ্ছেন। তারই ধারাবাহিকতায় ১৯ জুলাই মাঝিরঘাটে এক কোটি ইয়াবা লুটকারী সেই মিজান বেনাপোল থেকে আটক গত ৩০ জুলাই চৌফলদন্ডীতে ৩০জনের ইয়াবা সিন্ডিকেট আলোচিত ইয়াবা সম্রাট কিউবা রাখাইন এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ করার পর থেকে ইয়াবাকারবারীর পক্ষে হয়ে তদবির করেন শহরে টেকপাড়া এলাকায় মাদকাসক্ত নান্নু ও তার সিন্ডিকেট তাদের কথায় কর্ণপাত না করায় ক্ষিপ্ত হয়ে ধারালো ছুরি, হাতুড়ি, লোহার রড লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালায় অফিসের ভিতরে বাইরে ভাংচুর, পত্রিকার সম্পাদকের উপর হামলার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে কক্সবাজারের সংবাদ কর্মীরা।
এ ব্যাপারে দৈনিক কক্সবাজার একাত্তর পত্রিকার সম্পাদক রুহুল আমিন সিকদার বলেন, বিকেল সাড়ে তিনটার সময় দিন দুপুরে দৈনিক কক্সবাজার একাত্তর পত্রিকার কার্যালয়ে হামলা, ভাঙচুর ও মূল্যবান আসবাবপত্র নষ্ট করার ঘটনায় আমরা গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। প্রবীণ সাংবাদিক নুরুল ইসলাম বলেন -সাংবাদিক ও সম্পাদকের উপর হামলার ঘটনা খুবই দুঃখজনক। সংবাদপত্র ও সাংবাদিকের ওপর এ হামলা সংবিধান, বাক স্বাধীনতা, মানবাধিকার ও আইনের শাসনের উপর এক বেদনাদায়ক আঘাত। একটি গণতান্ত্রিক দেশে জনগণ এ দৃশ্য দেখতে চায় না। তিনি আরো বলেন, অবিলম্বে সন্ত্রাসীদের আইনের আওতায় আনার দাবি করছি। সেই সঙ্গে পত্রিকার, সাংবাদিক ও সংবাদ কর্মীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের নজর রাখা জরুরী বলে মনে করছে তারা। এ ছাড়া বিভিন্ন পত্রিকার সম্পাদক,প্রকাশক,সিনিয়র সাংবাদিকবৃন্দ এ ঘটনায় তীব্র প্রতিবাদ ও উদ্বেগ করেছেন। বিভিন্ন প্রশাসনিক ভবনের পাশে যে খানে পুরো শহর সিসি ক্যামরার নিয়ন্ত্রণে বলে দাবী করা হয়,সে খানে এ জঘন্যতম হামলা কোন ভাবেই মেনে নেয়া যায়না বলে সাংবাদিক নেতারা জানিয়েছেন।
উল্লেখ্য যে,গত মঙ্গলবার বিকাল ৩ টা ৫৮ মিনিটের সময় দৈনিক কক্সবাজার ৭১ অফিসে আক্রমন করে ফরিদুল হক (নান্নু) ও এর সহযোগী। গেইটের দারোয়ানকে হুমকি ও ধাক্কা দিয়ে, বেলাল কই ? বেলাল কই ? বলে অফিসে ঢুুকে । ঢুকার সময় দরজায় হাতুরি দিয়ে বারি মেরে দরজা ভেঙ্গে ফেলে। তার পর অফিসে ঢুকে অফিস সহকারি মোহাম্মদ আরিফ কে হাতুরির বারি দিতে চাইলে আরিফ পালিয়ে একটি কক্ষে ঢুকে যাই।তার পর সন্ত্রাসী নান্নু,ও তার সহযোগীর হাতে থাকা হাতুড়ি দিয়ে অফিসে রক্ষিত মূল্যবান জিনিসপত্র ভাংচুর করার লক্ষ্যে এলোপাতাড়ি বারি মারিয়া ম্যানেজারের রুমের পূর্ব দেয়ালে লাগানো ইকো ব্র্যান্ডের কালো রংয়ের ৪৩ ইঞ্চি ১টি এলইডি টিভি, স্যামসাং ব্র্যান্ডের কালো রংয়ের ১৯ ইঞ্চি ১টি কম্পিউটার মনিটর, ডিজিটাল ইলেক্ট্রনিক ঘড়ি ১টি এবং সম্পাদক ও বিজ্ঞাপন ম্যানেজারের টেবিল, গ্লাস ভেঙ্গে ফেলে।
পিয়ন আরিফুল ইসলামসহ দারোয়ানের শোরচিৎকারে আশ পাশের লোকজন এগিয়ে আসলে নান্নু ও তার দলবল নিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায় । প্রত্যক্ষদর্শী দৈনিক কক্সবাজার ৭১ এর অফিস সহকারি আরিফুল ইসলাম বলেন,“গতকাল মঙ্গলবার বিকাল ৩ টা ৫৮ মিনিটের সময় ফরিদুল হক নান্নু ও অচেনা ৪ জন সহ হঠাৎ অফিসে ঢুকতে বেলাল কই ? বেলাল কই ? বলে, হাতুরি দিয়ে দরজা ভেঙ্গে পেলে।এর পর আমি বাঁধা দিতে চাইলে ফরিদুল হক নান্নু আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে হাতুরি দিয়ে মারতে চাইলে আমি একটি রুমে ঢুকে দরজা লক করে দিই। এর পর সন্ত্রাসী নান্নু নিজের ইচ্ছা মত অফিসের দরজা , টেবিল, চেয়ার, আলমারি, কম্পিউটার, টেলিফোন, ঘড়ি , এসি ও টেলিভিশন ভাংচুর করে । আমি তখন চিৎকার করি ও সম্পাদক বেলাল স্যার কে কল দিই। আমার ও দারোয়ানের চিৎকারে আশে-পাশের লোক জন জড়ো হলে স্ব-দল বলে নান্নু পালিয়ে যায়।” দৈনিক কক্সবাজার পত্রিকার স¤পাদক বেলাল বলেন,“ দৈনিক কক্সবাজার ৭১ সত্য প্রকাশে একান্ত আদর্শিক কলম। দীর্ঘ ছয় বছর যাবৎ সত্য প্রকাশ,কক্সবাজারের মানুষের দুঃখ-দূর্দশা,সমাজের অন্যায়-অবিচার প্রকাশ করে ,দূঃসাহসীকতার পরিচয় দিয়ে কক্সবাজারের মানুষের বিশ^াস ও ভালোবাসা অর্জন করেছে। ২০১৮ সালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষিত মাদকে জিরো ট্রলারেন্স বাস্তবায়নের লক্ষে বিভিন্ন ভাবে প্রশাসন কে সহযোগীতা করে আসছে। এরই ধরাবাহিকতায় এক কোটি ইয়াবা লুঠের ঘটনায় টেকপাড়ার মিজান ও এর সাথে জড়িত ইয়াবা ব্যবসায়ীদের কে নিয়ে বেশ কয়েক টি দৈনিক কক্সবাজার ৭১ পত্রিকায় নিউজ প্রকাশ করে। ইয়াবা ব্যবসায়ীদের আশ্রয় ও পশ্রয়দাতা ফরিদুল হক (নান্নু) পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ প্রকাশ করতে বিভিন্ন ভাবে হয়রানি ও হুমকি দিয়ে আসছে। বন্দুকযুদ্ধে ইয়াবা ব্যবসায়ী মিজান মরা গেলে ,নান্নু দৈনিক কক্সবাজার ৭১ পত্রিকায় নিউজ প্রকাশ করছে বলে মিজান কে মেরে ফেলা হয়েছে এমন দাবি করে আসছে। এরই ফল স্বরুপ আমাকে (সম্পাদক বেলাল) প্রাণনাশের বার বার হুমকি দিয়ে আসছে। এর পর জুলাই ৩০ তারিখ ২০২০ ইং দৈনিক কক্সবাজার ৭১ পত্রিকায়“আলোচিত ইয়াবা সম্রাট কিউবা রাখাইন এখনো ধরাছোয়ার বাইরে ” শীর্ষক শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। এই প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ করতে চাইলেন ইয়াবা ব্যবসায়ীদের আশ্রয় ও পশ্রয়দাতা ফরিদুল হক (নান্নু)। আমি “আলোচিত ইয়াবা সম্রাট কিউবা রাখাইন এখনো ধরাছোয়ার বাইরে ” শীর্ষক শিরোনামের প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ প্রকাশে অপারগতা প্রকাশ করলে আমাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। এই সংবাদের প্রধান কিউবা রাখাইন ও মংসুইপ্রু ( হেরী ) একে অপরের আপণ ভাই। তারা দুজনই নাম করা ইয়াবা ব্যবসায়ী । কিউবা রাখাইরন এখন মায়ারমারে আছেন । তার সকল সহায় সম্পদ নান্নু দেখা শুনা করে । মংসুইপ্রু হেরী) বিশাল বাড়ি,গাড়ির মালিক । তারা দুই ভায়ের ইয়াবা ব্যবসায়ের মূল পরিচালক হলেন ফরিদুল হক নান্নু । হেরীর এর সাথে নান্নুর চৌফলদন্ডী ব্রীজের পাশে নতুন একটি পেট্রোল পাম্প করার জন্য খুটি ও গেড়েছে। তারা দুই ভাইয়ের সহযোগীতায় ও নান্নুর পরিচালনায় এই ইয়াবা ব্যবসায় বহু দিন ধরে করে আসছে। নান্নুর দুটি মাছ ধরার বোট ও একটি নোহা,১টি কার (ঢাকা মেট্রো ক-১১-৩১৪১) ঢাকা মেট্রো-খ-১২-৮০২০ মাদক পাচাওে ব্যবহার করে। ব্যবহার করে ইয়াবা টেকনাফ থেকে নেয়া-আসা করে । তাই ইয়াবা ব্যবসায়ীদের বাচাঁতে হুমকি দিয়ে আসছে। তার হুমকি আমার অনড় অবস্থার পরিবর্তন করতে না পেরে, সে (নান্নু) আমাকে মেরে ফেলার উদ্দেশ্যে আমার “দৈনিক কক্সবাজার ৭১” পত্রিকার অফিসে আক্রমন করে। আমাকে না পেয়ে আমার অফিস সহকারি মোহাম্মদ আরিফুল ইসলাম (১৪) কে হত্যা করার চেষ্টা করে । হত্যা করতে না পেরে আমার অফিসের দরজা,টেবিল,চেয়ার, আলমারি,কম্পিউটার, টেলিফোন,ঘড়ি ও টেলিভিশন ভাংচুর করে । ঘটনার পর সে আমার ব্যাক্তিগত মোবাইল ফোনে কল দিয়ে জানে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে । মেরে ফেলার জন্য আমার বাসার ও অফিসের সামনে তার ব্যাক্তিগত কার নিয়ে স্বশরীরে এসে কল কওে প্রাণ নাশের হুমকি দিচ্ছে। তার সব প্রমান আমার অফিসের সি.সি .টি.বি ভিডিও তে সংরক্ষিত আছে। তিনি আরো বলেন“আমি মুজিব সৈনিক । দেশের জন্য,দশের জন্য মরতে আমি সর্বদা প্রস্তুত। ২০১৮ সালে মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষিত মাদককে জিরো ট্রলারেন্স বাস্তবায়নের লক্ষে আমি আমার পত্রিকা দৈনিক কক্সবাজার শেষ নিশ^াস পর্যন্ত কাজ করে যাব ইনশা আল্লাহ। কুখ্যাত সন্ত্রাসী ফরিদুল হক (নান্নু) এর হীন অপকর্ম-কমকান্ডের ন্যয্য বিচার পেতে প্রশাসন সহ সকল সাংবাদিক ভাইদের সহযোগীতা কামনা করছি। কক্সবাজার সদর মডেল থানায় ফরিদুল হক নান্নু সহ তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করছি। সংবাদিকদের নিরাপত্তার স্বার্থে সঠিক তদন্তের মাধ্যমে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির প্রত্যাশা করছি। এমন ধিক্কার জনক ঘটনায় চরম উদ্বেগ ও উত্তেজনা চলছে কক্সবাজার সর্বস্থরের সাংবাদিক মহলে। কক্সবাজার জেলার সকল সংবাদিক মহল নিজের নিরাপত্তা কথা বিবেচনা কওে সংবাদপত্রের কার্যালয়ে বর্বোরচিত হামলার ও দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন এবং সংবাদিক মহল এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। অপরদিকে কক্সবাজার- রামুর সংসদ সদস্য সায়মুম সরওয়ার কমল , কক্সবাজার জেলার মান্যবর জেলা প্রশাসক কামাল হোসেন,বিভিন্ন রাজনৈতিক,সামাজিক নেতৃবৃন্দ ও সুশীল সমাজ দৈনিক কক্সবাজার ৭১ এর সন্ত্রাসী হামলার তীব্য নিন্দা জ্ঞাপন করেছেন। এ ছাড়াও চকরিয়ার কর্মরত সাংবাদিক, টেকনাফ প্রেস ক্লাব, টেকনাফের কর্মরত সাংবাদিক,উপকূলীয় সাংবাদিক, টেকনাফ সাংবাদিক ফোরাম ,সাংবাদিক নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির নেতৃবৃন্দ দৈনিক কক্সবাজার ৭১ এর সন্ত্রাসী হামলার তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১৭৮,৪৪৩
সুস্থ
৮৬,৪০৬
মৃত্যু
২,২৭৫

বিশ্বে

আক্রান্ত
৩৩,৪৯২,৬৫৯
সুস্থ
২৪,৮০১,৭০৩
মৃত্যু
১,০০৫,০৫৭
সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
২,৯৪৯
৩৭
২,৮৬২
১৩,৪৮৮
সর্বমোট
১৭৮,৪৪৩
২,২৭৫
৮৬,৪০৬
৯০৪,৫৮৪

একাত্তর পত্রিকার প্রতিনিধি সভা

dainikcoxsbazarekattor.com © All rights reserved